Wednesday , 21 November 2018

এইমাত্র পাওয়া খবর
Home » রাজনীতি » সমাবেশ নিয়ে অনড় বিএনপি

সমাবেশ নিয়ে অনড় বিএনপি

September 27, 2018 7:14 am by: Category: রাজনীতি Leave a comment A+ / A-

অনলাইন ডেস্ক :

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শনিবার বিএনপির জনসভা নিয়ে অনড় অবস্থান নিয়েছে দলটি। সেই সমাবেশ থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে কর্মসূচির ঘোষণা আসতে পারে।

দলের শীর্ষ নেতারা এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন। ২৯ সেপ্টেম্বরের জনসভা সফল করতে প্রস্তুতিও নিয়েছে দলটি। ঢাকা মহানগীর প্রতিটি ইউনিটকে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও রাজধানীর আশাপাশের জেলাগুলো থেকেও বড় জমায়েত নিয়ে হাজির হওয়ার তাগিদ দিয়েছেন দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা।
এ বিষয়ে বুধবার নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নেতাদের নিয়ে যৌথসভা করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এরপর সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা জনসভা করতে চেয়েছিলাম ২৭ তারিখে। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল যে, ২৭ তারিখ করা ঠিক হবে না। শনিবার ২৯ তারিখ ছুটির দিন সেদিন করেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে করেন। সেজন্য আমরা ২৯ তারিখে জনসভা করার এই সিদ্ধান্তটি নিয়েছি। এখন বলা হচ্ছে, না। সেদিন না কি, আওয়ামী লীগের কোনো একটা মতবিনিময় সভা আছে, আমি ঠিক জানি না। এটা মহানগর নাট্যমঞ্চে সম্ভবত আছে। বহু দূরে এই মতবিনিময় সভা। তার সঙ্গে আমাদের জনসভার সম্পর্কটা কোথায়, বিরোধ কোথায় সেটা তো আমরা বুঝতে পারছি না।’
১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিমের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নাসিম সাহেব এক সভায় বলেছেন, রাজপথে গলিতে যেখানে পাবা সেখানে আটকিয়ে দাও। সেখান থেকে যেন বিএনপি বেরিয়ে আসতে না পারে। আর জাহাঙ্গীর কবির নানক বলছেন, হাত-পা ভেঙে দাও। এই তো হচ্ছে তাদের গণতন্ত্রের ভাষা। জনগণ বিবেচনা করবে এই সংঘাত-সহিংসতা কারা শুরু করে। ২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবর কারা লগি-বৈঠা দিয়ে ২৭ জন তরুণকে হত্যা করেছিল এটা ভুলে যাওয়ার কথা নয়।’
বিএনপি শনিবারের সমাবেশের জন্য অনুমতি চেয়ে আবেদন আবারও করবে কি না? এর জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভাই অনুমতির আবেদন-টাবেদন না। ইট ইজ দেয়ার রেসপনসিবিলিটি। এটা তারা ঠিক করবেন কী করবেন? আজকে আমরা যৌথসভা করেছি ২৯ তারিখের জনসভার জন্য।’ এ সময় শনিবারের জনসভা থেকে বিএনপির ‘ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা ও কর্মসূচি’ ঘোষণা করা হবে বলেও তিনি জানান। তিনি বলেন, ‘এই জনসভা থেকে আমরা আমাদের নীতিনির্ধারণী বক্তব্য দেব, আমাদের ভবিষ্যতের কর্মপন্থা, ভবিষ্যতের কর্মসূচি- এগুলো আসবে।’
বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা গতরাতে জানান, ‘এখন পর্যন্ত বিএনপির অবস্থান হচ্ছে ২৯ সেপ্টেম্বরের সমাবেশ করা। শান্তিপূর্ণভাবে এই সমাবেশ করতে আমাদের প্রস্তুতি চলছে। আরও দুইদিন সময় আছে, আমরা আশা করছি- প্রসাশনের পক্ষ থেকে সহযোগিতা পাব।’
বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী বলেছেন, ‘আমরা জনসভার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। বিএনপি কোনো সংঘাতে বিশ^াস করে না। অনুমতি পেলে শান্তিপূর্ণ সমাবেশ হবে দলের পক্ষ থেকে সেই নিশ্চয়তা দিচ্ছি।’
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শনিবারের জনসভা ও আগামী দিনের কর্মসূচি ঠিক করতে গতরাতে দলের সিনিয়র নেতাদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই বৈঠকে মূলত শনিবারের জনসভা নিয়েই আলোচনা হয়েছে। একইসঙ্গে সহায়ক সরকারের রূপরেখা চূড়ান্ত করা ও এর ঘোষণার দিনক্ষণ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। সূত্রটি জানায়, শনিবারের সমাবেশে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার ব্যানারে বিএনপির এই সহায়ক সরকারের রূপরেখা তুলে ধরার কথা ছিল। কিন্তু ঐক্য প্রক্রিয়ার মূল নেতা ড. কামাল হোসেন গতরাতে সিঙ্গাপুর যাওয়ার কথা রয়েছে। এছাড়াও যুক্তফ্রন্টসহ অন্যদেরও এতে সায় মিলেনি। তাই এখন পর্যন্ত সমাবেশে সহায়ক সরকারের রূপরেখা দেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না বিএনপি। প্রয়োজনে ড. কামাল হোসেন দেশে ফেরার পর সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সেটি দেওয়ার বিষয়ে বিএনপি ভাবছে।
বিএনপির দায়িত্বশীল একটি সূত্রে জানা গেছে, শনিবারের সমাবেশ থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার জন্য শেষবারের মতো আল্টিমেটাম দিতে পারে বিএনপি। স্বল্প সময়ের এই আল্টিমেটামের পর রাজপথে বিক্ষোভ কর্মসূচিসহ ছোটখাটো কর্মসূচির ডাক দেওয়া হতে পারে। একই সেইসঙ্গে বৃহত্তর ঐক্যপ্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্ক কি হবে সে বিষয়েও পরিষ্কার ধারণা দিতে পারে বিএনপি। মঙ্গলবার রাতে যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার সঙ্গে বিএনপির বৈঠকে সে বিষয়ে আলোচনাও হয়েছে। সেই বৈঠকে বিকল্পধারার পক্ষ থেকে বিএনপিকে জানানো হয়েছে- ঐক্যপ্রক্রিয়ার আনুষ্ঠানিক যোগ দিতে হলে বিএনপিকে জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করতে হবে। সেটি প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ যেকোনো সম্পর্কই হোক না কেন। সেই বৈঠকে বিএনপির পক্ষ থেকে পর্যবেক্ষক হিসেবে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু জানান, শনিবারের সমাবেশ পর এ বিষয়ে বিএনপি অবস্থান জানাবে। সে জন্য ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় চাওয়া হয়েছে।

সুত্র আজকালের খবর

সমাবেশ নিয়ে অনড় বিএনপি Reviewed by on . অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শনিবার বিএনপির জনসভা নিয়ে অনড় অবস্থান নিয়েছে দলটি। সেই সমাবেশ থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শনিবার বিএনপির জনসভা নিয়ে অনড় অবস্থান নিয়েছে দলটি। সেই সমাবেশ থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির Rating: 0

Leave a Comment

scroll to top