নওগাঁয় ভাতাভোগীদের ভাতা প্রদানের সাথে মধ্যাহ্নভোজ

ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

নওগাঁয় ভাতাভোগীদের ভাতা প্রদানের সাথে মধ্যাহ্নভোজ


বাবুল আকতার রানা ঃ মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, সুমন চেয়ারম্যান হবে জনতার” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে নওগাঁর মান্দায় বিভিন্ন ভাতাভোগীদের ভাতা প্রদান, নুতন করে হিসাব নম্বর খোলার সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন।
জানা যায়, উপজেলার দেলুয়াবাড়ী মাধ্যমিক মহানগর মাঠের এক পাশে জ্বলছে ছয়টি চুলা। সেখানে বড় বড় হাঁড়িতে চলছে রান্না। ১৪ মণ চালের ভাত ও ১৪ মণ আলু দিয়ে আলুঘাটি তরকারি রান্নার আয়োজন চলছে। আয়াজকদের হিসাব অনুযায়ী, বিশাল মাঠ জুড়ে করা প্যান্ডেলে এক সঙ্গে দুই হাজার মানুষের খেতে পারবেন।  সাড়ে তিন থেকে চার হাজার মানুষকে খাওয়ানো হবে। মাঠের আরেক পাশে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওয়তায় উপকারভোগী বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধীদের মোবাইলে সরকারি ভাতা পৌঁছে দেওয়ার জন্য টেবিল-চেয়ার পেতে বসে থাকা কয়েকজন যুবক সুবিধাভোগীদের ব্যবহৃত সিমে মোবাইল ব্যাংকিং নগদ হিসাব খুলে দিচ্ছেন। মাঠের অপর পাশে করা মঞ্চ থেকে মাইকের মাধ্যমে ভারশোঁ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমনের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে তাকে আসন্ন নির্বাচনে আবারও নির্বাচিত করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন তার কর্মী-সমর্থকরা। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ভারশোঁ ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন গ্রাম থেকে আসা প্রায় চার হাজার মানুষ সমেবত হয়েছিলেন দেলুয়াবাড়ী মাধ্যমিক মহানগর মাঠে। প্রত্যেক ভাতাভোগীদের তিন মাসের ভাতা নগদ প্রদান ও মধ্যাহ্নভোজ  করানো হয়। 
চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সারাদেশে চলছে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে নানা আয়োজন। তারই ধারাবাহিকতায় আমি এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। বয়স্ক ও প্রতিবন্ধী মানুষদের হয়রানী না হতে, সহজেই ভাতা গ্রহণের জন্য এমন উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। অনেক বয়স্ক ও প্রতিবন্ধী মানুষরা অনেক কষ্ট করে এখানে আসবে আর কাজ শেষ করে পেটে ক্ষুধা নিয়ে ফিরে যাবেন তা হতে পারে না। তাই আমি এই সুযোগে এই মানুষদের একবেলা পেটপুরে খাবারের ব্যবস্থা করেছি মাত্র।