Wednesday , 17 July 2019

এইমাত্র পাওয়া খবর
Home » অর্থনীতি » নওগাঁর মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের জোগসাজসে জলাশয় সংস্কার কাজে বঞ্ছিত হচ্ছেন শ্রমিকরা

নওগাঁর মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের জোগসাজসে জলাশয় সংস্কার কাজে বঞ্ছিত হচ্ছেন শ্রমিকরা

April 7, 2019 11:33 am by: Category: অর্থনীতি, নওগাঁ জেলার খবর, বাংলাদেশ Leave a comment A+ / A-

নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁয় মৎস্য অধিদপ্তরের আরডি প্রকল্পের আওতায় জলাশয় সংস্কার কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সরকারী নিতিমালায় পুকুর/দিঘী/দহের খননের কাজ স্থানীয় শ্রমিক দিয়ে করার কথা বরাদ্দ পত্রে উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু ঠিকাদাররা শ্রমিক দিয়ে কাজ না করে মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের জোগসাজসে এক্সাভেটর (ভেক্যু) মেশিন দ্বারা কাজ করছেন। এ নিয়ে স্থানীয় গরীব দিনমজুর শ্রমিকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

প্রতিদিন বিভিন্ন শ্রমিকের নাম দেখিয়ে ভূয়া মাস্টাররোল তৈরী করে বিল ভাউচার করছেন ঠিকাদারগণ। কাজ করতে গিয়ে সরকারী নীতীমালা অমান্য করাসহ শিডিউল মানা হচ্ছেনা বলে অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি দ্রুত উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে এক্সাভেটর (ভেক্যু) মেশিন দ্বারা কাজ বন্ধের ও প্রকল্পের কাজে হরিলুট বন্ধ করে সুষ্ঠুভাবে খনন কাজ সম্পন্ন করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় শ্রমিকরা।

নওগাঁ মৎস্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা মতে, নওগাঁ সদর উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের সরাইল মৌজার ঘুলির দহের সংস্কার কাজে ৭ লাখ ৯০ হাজার, বৈঠাখালীদহ পুকুর (১) ১৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা, বৈঠাখালী পুকুর (২) ১২ লাখ ৫০ হাজার সরাইল, জেলার বদলগাছী উপজেলার কাস্টগাড়ী মৌজার সর্বমঙ্গলা পুকুর সংস্কার কাজে ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা, খাদাইল মৌজার সিংড়াডোবা পুকুর ৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা, বেগুনজোয়ার মৌজার কৃষ্ণপুকুর ও চন্দনপুকুরে ১৪ লাখ ৩২ হাজার টাকা, পতœীতলা উপজেলার বাবনাবাজ মৌজার বেলপুকুর ৪ লাখ ১৮ হাজার টাকা, দোছাই মৌজার কামাড়াপুকুর ৪ লাখ ৬৩ হাজার টাকা, চকখৈল মৌজার তিতিহার পুকুর ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ধামইরহাট উপজেলার কাশিপুর মৌজায় গুচ্ছগ্রাম পুকুর ১৭ লাখ টাকা, আগ্রাদ্বিগুন মৌজার আকলাহার পুকুর ১১ লাখ টাকা, বড়দুশমিতা পুকুর ৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা, নলাপুকুর ১৪ লাখ টাকা, বড়পুকুর ৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা ও ধাপের পুকুর ৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা জলাশয় সংস্কার কাজে ব্যয় করা হবে। প্রতিটি কাজে দৈনিক গড়ে ১০০ জন শ্রমিক কাজ করার কথা থাকলেও ভূয়া মাস্টাররোল তৈরী করে বিল ভাউচার বিল উওোলন করা হচ্ছে।

প্রকল্পের স্থানে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নওগাঁ সদর উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের সরাইল ঘুলিরদহের সংষ্কার কাজে শ্রমিক দিয়ে কাজ করানোর কথা থাকলেও তা না করে নওগাঁ মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের জোগসাজসে এক্সাভেটর (ভেক্যু) মেশিন দ্বারা কাজ করানো হচ্ছে। উল্লেখিত স্থানে কাগজে-কলমে ১০ফিট খনন করার কথা থাকলেও তা না করে মাত্র ১ থেকে ২ফিট খনন করছেন। অন্যদিকে, কোন কোন পুকুরে পানি থাকাও সত্বেও সেই খনন কাজ না করে পিড়ি ওয়ার্ক দেখানো হচ্ছে। প্রকল্পের সাইনবোর্ডে কাজ শুরুর তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে ২০,০২,১৯ ইং এবং প্রকল্পের কাজ সম্পর্নের তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে ৩১,০৩,১৯ ইং। কিন্তু কাজ শুরু করে গতকাল (৩০.০৩.১৯ ইং ) যা এখনও এক্সাভেটর (ভেক্যু) মেশিন দ্বারা চলমান রয়েছে।

সরাইল গ্রামের স্থানীয় শ্রমিক মো.সাহিদ হোসেন বলেন, আমরা এলাকার দিন মজুর এইকাজগুলো আমাদের দিয়ে করানোর কথা কাগজপত্রে উল্লেখ থাকলেও তা না করে এক্সাভেটর (ভেক্যু) মেশিন দিয়ে কাজ করছেন। প্রতিদিন ১০০জন শ্রমিক কাজ করার কথা কিন্তু ভুয়া নাম ব্যবহার করে টাকা উওোলন করছে। যার কারনে আমরা কাজ শূন্য হয়ে পড়েছি।

দুলাল খন্দকার নামে আর এক জন স্থানীয় শ্রমিক জানান, শ্রমিক না কাঠিয়ে নামগড়া শ্রমিকের নাম দিয়ে টাকা উওোলন করছে যা মহা অন্যায়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কাজের বিনিময়ে আমাদের দিনমজুরের মুখে দুবেলা দুমোঠো খাবারের ব্যবস্থা করেছেন। কিন্তু এই উল্লেখিত কাজে কাগজ-কলমে শ্রমিক দ্বারা কাজ করে নেওয়ার কথা থাকলেও মৎস্য অফিস ও ঠিকাদাররা ভেক্যু মেশিন দিয়ে কাজ করছেন। যার কারনে আমরা কাজ থেকে বঞ্ছিত হচ্ছি। তাই কৃর্তপক্ষের জোর দাবি জানাচ্ছি।

 

নওগাঁর মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের জোগসাজসে জলাশয় সংস্কার কাজে বঞ্ছিত হচ্ছেন শ্রমিকরা Reviewed by on . নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁয় মৎস্য অধিদপ্তরের আরডি প্রকল্পের আওতায় জলাশয় সংস্কার কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সরকারী নিতিমালায় পুকুর/দিঘী/দহের খননের কাজ স্থানীয় শ্রমি নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁয় মৎস্য অধিদপ্তরের আরডি প্রকল্পের আওতায় জলাশয় সংস্কার কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সরকারী নিতিমালায় পুকুর/দিঘী/দহের খননের কাজ স্থানীয় শ্রমি Rating: 0

Leave a Comment

scroll to top