নওগাঁর মহাদেবপুরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে দুই গৃহবধূর মৃত্যু

নওগাঁর মহাদেবপুরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে দুই গৃহবধূর মৃত্যু


কাজী রওশন জাহান ঃ নওগাঁর মহাদেবপুরে পৃথক ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চম্পা রাণী বর্ম্মণ (২৭) ও মনোয়ারা বেগম (৪৫) নামে দুই গৃহবধূর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। ময়না তদন্ত শেষে সোমবার (১৫ মার্চ) দিবাগত রাতে চম্পা রাণীকে দাহ করানো হয় এবং বিকেলে মনোয়ারা বেগমের দাফন সম্পন্ন করা হয়। নিহত চম্পা রাণী উপজেলার হাতুড় ইউনিয়নের শালবাড়ি গ্রামের বিদ্যুৎ চন্দ্র বর্ম্মণের স্ত্রী ও মনোয়ারা বেগম এনায়েতপুর ইউনিয়নের চকবলরাম গ্রামের নুরুল ইসলামের স্ত্রী।
উভয়ের পারিবারিক সূত্র জানায়, গত ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুরে রান্না করার সময় পরনের কাপড়ে আগুন লাগলে চম্পা রাণী মারাত্মক দগ্ধ হন। তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে এবং সেখান থেকে ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার দিবাগত রাতে তার মৃত্যু হয়।
এছাড়া রোববার বাড়িতে অগ্নিকান্ড ঘটলে মনোয়ারা বেগম মারাত্মক দগ্ধ হন। তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে রাতে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের সময় পথে তার মৃত্যু হয়। মনোয়ারার স্বামী দাবি করেছেন, তার স্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে মানসিক ভারসাম্যহীন। নিজেই শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে।
মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ বলেন, দুই গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনায় থানায় পৃথক ইউডি মামলা এন্ট্রি করা হয়েছে। ময়নাদতন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে এবিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#