মহাদেবপুরে গুলিবিদ্ধ বিএনপি সভাপতিসহ ৮ নেতা আটক

মহাদেবপুরে গুলিবিদ্ধ বিএনপি সভাপতিসহ ৮ নেতা আটক

মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি :

নওগাঁর মহাদেবপুর থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ¦ মো: রবিউল আলম বুলেটসহ আট নেতাকর্মীকে পুলিশ আটক করেছে। মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) বিকেলে দলীয় কর্মসূচী শেষে নওগাঁ থেকে মহাদেবপুর ফেরার পথে উপজেলার নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ি এলাকায় তাদেরকে আটক করা হয়। আটক অন্য নেতাকর্মীরা হলেন, সাধারণ সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মো: আব্দুল মতিন মন্ডল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আব্দুল হান্নান সরদার, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক কাজী আব্দুস সোবহান, সদস্য চঞ্চল রহমান, সদস্য ইষতিয়ার উদ্দিন দূরন্ত, ও বিএনপি নেতা ফেরদৌস আলম। এরা সকলেই বিভিন্নভাবে আহত হন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হেফাজত কর্মীদের নিহতের ঘটনায় দুপুরে নওগাঁ জেলা বিএনপির উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে নেতাকর্মীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ, টিয়ার শেল নিক্ষেপ, রাবার বুলেট ও ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে অন্যদের মধ্যে মহাদেবপুরের নেতাকর্মীরাও আহত হন। উপজেলা বিএনপির সভাপতির গাড়ীযোগে তারা মহাদেবপুর ফেরার পথে নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির কাছে তিনটি গাড়ীতে আসা পুলিশ তাদের বেরিকেড দিয়ে আটক করে নওগাঁ নিয়ে যায়।
জানতে চাইলে মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ এব্যাপারে কিছু জানেন না বলে জানান। নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রকিবুল আক্তার বলেন, অনুমতি ছাড়াই বিএনপির নেতাকর্মীরা মিছিল বের করার চেষ্টা করে। ব্যস্ততম সড়ক দিয়ে মিছিল নিয়ে যাবার চেষ্টা করলে উপস্থিত সদস্যরা তাঁদেরকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় বিএনপির কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুড়তে থাকে। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশও টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট ছোড়ে। বিএনপির কর্মীদের হামলায় ৬-৭ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে এবং দুষ্কৃতকারীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।#