নওগাঁয় র‌্যাব-৫ কর্তৃক ১৪৩৫ পিস বুপ্রেনরফিন ইঞ্জেকশনসহ ০৩ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

নওগাঁয় র‌্যাব-৫ কর্তৃক ১৪৩৫ পিস বুপ্রেনরফিন ইঞ্জেকশনসহ ০৩ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

মামুন পারভেজ হিরা ঃ নওগাঁ জেলার সদর থানাধীন শিবপুর বাইপাস ব্রীজের মোড় এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম. এম. মোহাইমেনুর রশিদ, পিপিএম-সেবা এর নেতৃত্বে ১২ জানুয়ারি ২০২১ ইং তারিখ সন্ধা ৬.৩০ ঘটিকায় বুপ্রেনরফিন ইঞ্জেকশন- ১৪৩৫ পিস,সিএনজি-০১টি,মোবাইল সেট-০৩টি,সীম কার্ড-০৭টি,মেমোরী কার্ড-০৩টি,মাদক বিক্রয়লব্ধ নগদ অর্থ- ৮,৭০০/-  টাকাসহ মাদক ব্যবসায়ী আসামী মোঃ রফিকুল ইসলাম (৪৩), পিতা-মৃত আব্দুর রহিম, সাং-চক বৈদ্যনাথপুর (পশ্চিম বরগাছা), থানা-নাটোর সদর,মোঃ দুলাল সরদার (৩৮), পিতা-মৃত আব্দুর রহমান সরদার, সাং-সুর্যবাড়ী, থানা-নলডাঙ্গা, উভয় জেলা-নাটোর ও মোঃ বিল্লাল হোসেন (৪০) (সিএনজির ড্রাইভার), পিতা-মোঃ ইয়াছিন প্রামাণিক, সাং-সিংবাছা, থানা-নওগাঁ সদর, জেলা-নওগাঁদেরকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত ধৃত আসামীগণ পরস্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন যাবৎ নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য বুপ্রেনরফিন ইঞ্জেকশন অবৈধভাবে সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে মাদকসেবী ও মাদক কারবারীদের নিকট সরবরাহ করে আসছিল বলে স্বীকার করে। উল্লেখ্য যে, ধৃত ১নং ও ২নং আসামী আন্তঃজেলা মাদক সিন্ডিকেটের সক্রিয় সদস্য এবং তারা দিনাজপুর, নওগাঁ, বগুড়া ও জয়পুরহাট জেলার বিভিন্ন স্থানে দীর্ঘদিন যাবত সিন্ডিকেটের মাধ্যমে মাদক ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। এছাড়াও আরও জানা যায় যে, ধৃত ১নং আসামী মোঃ রফিকুল ইসলাম (৪৩) পাকশী এবং সান্তাহার রেল স্টেশন এলাকায় প্রায় ২২ সদস্যের একটি চুরি ও ছিনতাইকারী দলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। উক্ত ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।   
পরবর্তীতে ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে নওগাঁ জেলার সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।