নওগাঁয় দুটি রুট দখলের প্রতিবাদে অভ্যন্তরীণ সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ

নওগাঁয় দুটি রুট দখলের প্রতিবাদে অভ্যন্তরীণ সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ

মামুন পারভেজ হিরা --- 
নওগাঁয় অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার দুটি রুট দখলের প্রতিবাদে নওগাঁ জেলার অভ্যন্তরীণ সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। নওগাঁ জেলা পরিবহণ মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন । তিনি জানান- অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার দুটি রুট দখলের প্রতিবাদে নওগাঁ জেলার অভ্যন্তরীণ সকল রুটে মঙ্গলবার বিকেল থেকে বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে । এই দখলদারির সকল সমস্যা সমাধান করে পুনরায় এসকল রুটে বাস চালচল স্বাভাবিক করার কথা তিনি জানান।

এদিকে বুধবার সকাল থেকে জেলার বালুডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে বাস চলাচল বন্ধ আছে। তবে দূরপাল্লার কিছু পরিবহণ যাত্রী নিয়ে টার্মিনাল ছেড়ে যায়। অপরদিকে জেলায় অভ্যন্তরীণ রুটে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পরেছেন চলাচলের যাত্রীরা। যাত্রীরা জানান- মালিক গ্রুপ ও শ্রমিক ইউনিয়নের দ্বন্দের কারনে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় ভীষণ দুর্ভোগে পরেছেন তারা। শহর থেকে উপজেলাগুলোতে অফিসগামীরা এই দুর্ভোগের খুব তারাতারি অবসান চেয়ে সমাধানের দাবী তুলে ধরেন তারা। অপরদিকে যে সকল দিন মজুর জীবিকার তাগিদে বাসে চলাচল করেন বাস বন্ধ থাকায় অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে বিকল্প পরিবহন ব্যবহারে বাধ্য হচ্ছেন তারা। এতে করে উপার্জনের টাকার বেশিরভাগই বিকল্প পরিবহনের হাতে তুলে দিতে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তারা।

এদিকে দিনমজুর টার্মিনালের কুলিরা জানান- দৈনিক ২০০-২৫০ টাকা উপার্জন করতেন তারা। কিন্তু বাস চলাচল বন্ধ থাকায় সেই উপার্জনের পথটুকুও বন্ধ হয়েছে তাদের। অপরদিকে বাসে কর্মরত সুপারভাইজার জানান- দৈনিক উপার্জন থেকে তাদের সংসার চালাতে হয়। এমনভাবে বাস চলাচল বন্ধ থাকলে পরিবার নিয়ে ভীষণ দুর্ভোগ পোহাতে হবে বলে জানান তারা। এসকল মালিক পক্ষ ও ইউনিয়ন পক্ষের দ্বন্দের ফলে সংশ্লিষ্ট সকল শ্রমিক এবং যাত্রীদের দুর্ভোগের অবসান ঘটিয়ে দ্রুত বাস চলাচল স্বাভাবিক করার আহ্বান জানান তারা ।

এদিকে বাস চালকরা জানান- বাস মালিকদের অনুমতির অপেক্ষায় আছেন তারা। বাস চলাচল বন্ধ থাকায় সংশ্লিষ্ট দিনমজুরদের উপার্জন বন্ধ হয়ে পরেছে। তারা জানান- দৈনিক উপার্জন দিয়ে তারা সংসার পরিচালনা করেন । এখন বাস বন্ধ থাকায় রুটি রোজগার তাদের বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম।

পরিবহনের সাথে যুক্ত এসকল সংগঠনকে যাত্রী সেবার মান বাড়ানো , শ্রমিকদের উন্নয়নের জন্য কাজ করার আহ্বান জানিয়ে পুনরায় এসকল রুটে বাস চলাচল স্বাভাবিক করতে যথাযত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান সংশ্লিষ্টরা।