নওগাঁর সাপাহারে বিবাদমান পুকুর নিয়ে সংঘর্ষে দু’পক্ষের আহত-১৩

নওগাঁর সাপাহারে বিবাদমান পুকুর নিয়ে সংঘর্ষে দু’পক্ষের আহত-১৩

সাপাহার প্রতিনিধি : নওগাঁর সাপাহারে বিবাদমান পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষে দু পক্ষের প্রায় ১৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। 
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে উপজেলার শ্রীধরবাটি গ্রামে বিবাদমান ২টি পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে এক পক্ষের ১১জন ও প্রতিপক্ষের ২জন সহ মোট ১৩ জন গুরুত্বর আহত হয়েছে। আহতরা হলো উপজেলার শ্রীধরবাটি ইসলামপুর গ্রামের মৃত সিরাজউদ্দীনের ছেলে রব্বুল (৫০), তার সহোদর আব্দুল হাই (৫৫) , আঃ রফিকের ছেলে শাহজামাল (৩০), আব্দুল হাইয়ের ছেলে সাদেকুল (৩৩), মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে ইসাহাক আলী (৫৫) , তার সহোদর ইমাম হোসেন (৬০), মোক্তার হোসেনের ছেলে রুহুল আমিন (৩৩) , তার সহোদর তরিকুল (২৮) , আব্দুর রফিকের স্ত্রী  গাজলী (৪৫) সহ আরো বেশ কয়েকজন। অপর দিকে একই গ্রামের প্রতিপক্ষের আব্দুল খালেকের ছেলে জিয়াউর (২৬) ও আমজাদের ছেলে আঃ মান্নœান আহত হয়েছেন। আহতদের সাপাহার সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান ও ভর্তি করা হয়েছে। 

সুত্রে জানাগেছে শ্রীধরবাটি ইসলামপুর গ্রামে দুইটি পুকুর যার পরিমাণ যথাক্রমে ১ একর ৯৬ ও ৩ একর ৭৫ ওই গ্রামের আব্দুল হামিদের নামে পত্তন হয়। পরবর্তী সময়ে সরকার পক্ষ মামলা করলে ২০০৯ সালে আদালত হতে আব্দুল হামিদের নামে ডিক্রী হয়।  পরবর্তীতে সরকার পক্ষে আপিল করা হলে মামলাটি আবারো গত ২৬ জানুয়ারী ২০২০ তারিখে আব্দুল হামিদের ওয়ারিশ গনের নামে ডিক্রী হয়। আদালতে মামলা বিচারাধিন থাকা কালে সরকারি ভাবে পুকুর গুলো স্থানীয় আয়েশ উদ্দীনের ছেলে মুজিবুলকে লিজ প্রদান করা হয়। যার ফলে প্রতিপক্ষের লোকজন পুকুরে মাছ ধরতে গেলে দুই পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়।
এ বিষয়ে সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ তারেকুর রহমান সরকারের সাথে মোবাইলে  কথা হলে তিনি জানান, এখনো পর্যন্ত কোন পক্ষ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ করলে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে। তবে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ।