জয়পুরহাট ক্যাম্প কর্তৃক ১৮৩৯ খ্রিস্টাব্দের ০১টি আসল এবং ০১টি নকল প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন সহ ০৬ জন আসামী গ্রেফতার

জয়পুরহাট ক্যাম্প কর্তৃক ১৮৩৯ খ্রিস্টাব্দের ০১টি আসল এবং ০১টি নকল প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন সহ ০৬ জন আসামী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার –
র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পের একটি অপারেশনাল দল, কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম মোহাইমেনুর রশিদ, পিপিএম-সেবা এর নেতৃত্বে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই), জয়পুরহাট এর একটি গোয়েন্দা দল এবং প্রতœতাত্ত্বিক অধিদপ্তর এর একজন প্রতিনিধিসহ ১৭ জুলাই ২০২০ ইং তারিখ ০২.০০ ঘটিকার সময় জয়পুরহাট জেলার সদর থানাধীন সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে পাকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে (ক) ১৮৩৯ খ্রিস্টাব্দের ০১ (এক) টি প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শন (তা¤্রমুদ্রা), যাহার আনুমানিক মূল্য ৫০,০০,০০০/- (পঞ্চাশ লক্ষ) টাকা, (খ) ০১ (এক) টি নকল প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শন (দেখতে হুবহু আসল তা¤্রমুদ্রার মতো), (গ) মোবাইল সেট-০৬ (ছয়) টি, (ঘ) সীম কার্ড-১২ (বার) টি, (ঙ) মেমোরী কার্ড-০৪ (চার) টিসহ আসামী ১। মোঃ জাহের আলী (৪৬), পিতা-ভগি মামুন, সাং-সিনাইহাট বড়গ্রাম, থানা-রাজারহাট, জেলা-কুড়িগ্রাম, ২। মোঃ মাহমুদুল হোসেন (৫৭), পিতা-মৃত আব্দুল জব্বার, সাং-সাহারপুকুর, থানা-আদিতমারী, জেলা-লালমনিরহাট, ৩। মোঃ আসাদুজ্জামান (৩২), পিতা-সফিয়ত আলী, সাং-নারিকেলবাড়ি, থানা-উলিপুর, জেলা-কুড়িগ্রাম, ৪। মোঃ নুরুল ইসলাম (৬০), পিতা-মৃত রিয়াজ উদ্দিন, সাং-দেবীপুর, থানা-সদর, জেলা-জয়পুরহাট, ৫। মোঃ মোতালেব হোসেন @ বাবু (৬২), পিতা-মৃত আব্দুল সাত্তার, সাং-মিনিগাড়ি,থানা-ক্ষেতলাল, জেলা-জয়পুরহাট, ৬। মোঃ মাসুম মিয়া (২৫), পিতা-মৃত বক্তার আলী, সাং-মীরের বাড়ী, উভয় থানা-রাজারহাট, জেলা-কুড়িগ্রামদেরকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত ধৃত আসামী ১। মোঃ জাহের আলী, ২। মোঃ মাসুম মিয়া, ৩। মোঃ আসাদুজ্জামান কুড়িগ্রাম হইতে উক্ত তা¤্রমুদ্রা বহন করে জয়পুরহাটে আসিয়া ধৃত আসামী ৪। মোঃ মোতালেব হোসেন @ বাবু, ৫। মোঃ মাহমুদুল হোসেন, ৬। মোঃ নুরুল ইসলাম-দের সহায়তায় উক্ত তা¤্রমুদ্রা দুইটি নওগাঁ জেলার একটি পার্টির নিকট বিক্রয়ের জন্য ৫০,০০০,০০/- (পঞ্চাশ লক্ষ) টাকার চুক্তি করে তাদেরকে আসল তা¤্রমুদ্রা দেখিয়ে নকল তা¤্রমুদ্রা দিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করছিল। র‌্যাব কর্তৃক দ্রুত অভিযানের ফলে তাদের তা¤্রমুদ্রা বিক্রয় সংক্রান্ত প্রতারণার কার্যক্রম ভেস্তে যায়। উল্লেখ্য যে, ইতোপূর্বে র‌্যাব-৫, জয়পুরহাট ক্যাম্প কর্তৃক জয়পুরহাট ও নওগাঁ জেলায় একাধিকবার অভিযান পরিচালনা করে বিভিন্ন প্রতœতাত্তিœক নিদর্শন উদ্ধার করা হয়েছে।

পরবর্তীতে ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে জয়পুরহাট জেলার সদর থানায় পুরাকীর্তি আইনে মামলা দায়ের সম্পর্কিত কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।